আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্কুশ, মনোবল রাখতে বললেন ভক্তদের

বিনোদন ডেস্কঃ সুপার সাইক্লোন আম্পানে বাংলাদেশের পাশাপাশি ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয়েছে পার্শ্ববর্তী পশ্চিমবঙ্গ। ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে শুধু মাটি বা টিনের ঘর নয়, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কলকাতার মাল্টিপ্লেক্স ভবনও। আক্রান্ত হয়েছেন টলিউড সেলিব্রিটিরাও।

টলিউড অভিনেতা অঙ্কুশ হাজড়া শুধু ওপাড় বাংলায় নয়, বাংলাদেশেও বেশ জনপ্রিয়। আম্পান ঝড়ে ক্ষতি হয়েছে তার বাড়িরও। অঙ্কুশের বাড়ির বাথরুমের ফলস সিলিং ভেঙে পড়েছে। ক্ষতি হয়েছে রান্নাঘরেরও। একটি ভিডিওতে সেই কথাই জানিয়েছেন অভিনেতা।

বুধবার সন্ধ্যা থেকে দক্ষিণবঙ্গে তাণ্ডব দেখাতে শুরু করে সুপার সাইক্লোন আম্পান। পরিস্থিতি যে ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে, তার আশঙ্কা ছিল আগেই। হাজার হাজার গাছ উপড়ে পড়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। কলকাতা হারিয়েছে তার চিরচেনা রূপ। সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা।

এমন পরিস্থিতিতে অন্তত বহুতলগুলি অনেকটাই সুরক্ষিত বলে মনে করে মানুষ। পাকা বাড়ি। যথেষ্ট মজবুত। ফলে প্রাকৃতিক বিপর্যয় সামলে উঠতে পারে এইসব বহুতলগুলি। কিন্তু এবার ব্যতিক্রম। আম্পানের প্রভাব থেকে রেহাই পায়নি এই কংক্রিটেরর বাড়িগুলোও। তার প্রমাণ অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরা দিয়েছেন তার ফেসবুক প্রোফাইলে। তার বাথরুমের ফলস সিলিং ভেঙে পড়েছে। সেই ছবি পোস্ট করে অঙ্কুশ লিখেছেন, ‘সাইক্লোন না ভূমিকম্প? আমার বাথরুমের এই অবস্থা হয়েছে। জানালাগুলো ভেঙে গিয়েছে। সারা ঘরে জল থইথই।’

অঙ্কুশ আরও জানান, তাদের মতো মানুষ তবু এগুলো সামলে নিতে পারবেন। কিন্তু যারা দরিদ্র, ভগবান যেন তাদের সহায় হন। সবাইকে সেই সব মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এরপর বৃহস্পতিবার একটি ভিডিও শেয়ার করেন অঙ্কুশ। সেখানে তিনি সবাইকে আম্পানের পরবর্তী পরিস্থিতি সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। অনুরাগীদের অবস্থা কী, তা জানতে চান। তার রান্নাঘরে যে ক্ষতি হয়েছে, সেই কথা তখনই জানান অঙ্কুশ।

তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গ এখন একটি কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। একদিকে করোনা, অন্যদিকে আম্পান। এই সাঁড়াশি আক্রমণ থেকে শুধুমাত্র মনের জোরেই বেরিয়ে আসার সম্ভব। তাই এই কঠিন পরিস্থিতিতে মনের জোর না হারানোর আহ্বান জানিয়েছেন অঙ্কুশ।