দেরিতেও ভ্যাট রিটার্ন দাখিল করা যাবে

প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা মহামারির মতো আপৎকালে নির্ধারিত সময়ের পরেও সুদ ও জরিমানা ছাড়াই ভ্যাট রিটার্ন দাখিল করা যাবে।

মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইনে এমন সুযোগ রেখে আইনটি সংশোধন করা হয়েছে। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের অনুমতিক্রমে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে সংশোধিত অধ্যাদেশ ইস্যু করা হয়েছে।

বুধবার (২০ মে) জারি করা অধ্যাদেশটি গত ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর ধরা হয়েছে। অধ্যাদেশে মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২ এর ৬৪ নং ধারার ১ উপ-ধারায় ক ও খ উপ-ধারা সন্নিবেশিত হয়েছে।

ক উপ-ধারায় বলা হয়েছে, এ আইনের অধীনে ভিন্ন যাহাই কিছু থাকুক না কেন প্রাকৃতিক দুর্যোগ, মহামারি, দৈব-দুর্বিপাক বা যুদ্ধের কারণে জনস্বার্থে বোর্ড ও সরকারের অনুমতিক্রমে বর্ণিত আপৎকালের জন্য সুদ ও জরিমানা আদায় হতে অব্যাহতি প্রদান করে দাখিলপত্র পেশের সময়সীমা বৃদ্ধি করতে পারবে।

Eid

খ উপ-ধারায় বলা হয়েছে, উপ-ধারা ১ক এ উল্লেখিত আদেশ ভূতাপেক্ষ কার্যকারিতা প্রদান করা যাবে।

মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন অনুযায়ী প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে রিটার্ন জমা না দিলে ১০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হয়। নতুন ধারা অনুযায়ী

এনবিআর ও সরকারের অনুমতিক্রমে আপৎকালের জন্য সুদ ও জরিমানা আদায় থেকে অব্যাহতি প্রদান করে দাখিলপত্র পেশের সময়সীমা বৃদ্ধির সুযোগ তৈরি হয়েছে।

গত ১৫ মে পর্যন্ত সারা দেশে ভ্যাট রিটার্ন (এপ্রিল মাস) দাখিল হয়েছে ৪২ হাজার ৬০০, যা গত মাসের (মার্চ) চেয়ে প্রায় ১১ হাজার বেশি। শতকরা হিসেবে দাখিলপত্র বেড়েছে ৩৪ দশমিক ৮২ শতাংশ। এ সময় রাজস্ব আদায় হয়েছে হয়েছে ৩ হাজার ৮৭৯ কোটি টাকা, যা আগের মাসের চেয়ে প্রায় ৭০০ কোটি টাকা বেশি। শতকরা হিসেবে রাজস্ব বেড়েছে ২২ শতাংশের বেশি