অস্ত্র মামলায় সাইফুর-রনির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট

নিজস্ব প্রতিবেদক : এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। একইদিনে অস্ত্র উদ্ধারের আরেকটি মামলায় চার্জশিট দিয়েছে পুলিশ। এতে  ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমান ও আরেক আসামি শাহ মো. মাহবুবুর রহমান রনিকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) সকালে সিলেট মহানগর মূখ্য হাকিম আবুল কাশেমের আদাণলতে এই দুই মামলার চার্জশিট প্রদান করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহপরান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য।

দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে ধর্ষণ মামলার সাথে অস্ত্র মামলারও অভিযোগপত্র (চার্জশিট) প্রদানের কথা জানায় পুলিশ। সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এর কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন  করা হয়।

এতে মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) সুহেল রেজা জানান, ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে সংঘধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর ওই তরুণীর স্বামী শাহপরান থানায় মামলা করেন। ওই রাতেই ছাত্রাবাসে সাইফুর রহমানের (২৮) কক্ষে তল্লাশি চালিয়ে একটি পাইপগান, ৪টি রামদা, ২টি চাকু উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় শাহপরান থানায় অস্ত্র আইনে মামলা (নং-২২/২৬/০৯/২০) করা হয়।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরো জানান, মামলার তদন্তে ওই অবৈধ অস্ত্রগুলোর সাথে সাইফুর রহমান ও মাহবুবুর রহমান রনির সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। ফলে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট (শাহপরান থানায় অভিযোগপত্র নং-১৬৪/২২/১১/২০) দাখিল করা হয়েছে।