বিশ্বনাথে টেইলারিং দোকানে গাঁজা রেখে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর চেষ্টা !

 সিলেটের বিশ্বনাথে পূর্ব বিরুধের জের ধরে প্রতিপক্ষের টেইলারিং দোকানে গাঁজা রেখে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু বেরসিক পুলিশ অনুসন্ধান করে টেইলার জুবায়ের আহমদ রাজুর প্রতিপক্ষ প্রকৃত গাঁজার মালিককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।

পুলিশসহ বিভিন্ন সুত্রে জানা যায়, উপজেলার কাউপুর গ্রামের আব্দুল আলীর পুত্র জুবায়ের আহমদ রাজু বিশ^নাথ থানা সদরের হাজি জবান আলী মার্কেটে টেইলারিং এর দোকান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তার গ্রাম কাউপুরে, প্রতিপক্ষের সাথে বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে বিরুধ চলে আসছিল। এনিয়ে গ্রামে কয়েকটি চাঞ্চল্যকর ঘটনাও ঘটেছে। প্রতিপক্ষ রাজুকে ফাঁসানোর জন্য পরিকল্পিতভাবে দোকানে গাঁজা রেখে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করানোর কৌশল অবলম্বন করে।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজুর টেইলারিং দোকানে প্রতিপক্ষের রুবেল আহমদকে ৪০ পুটলি খাজার একটি পেকেট টেইলারিং দোকানে রেখে যায় এবং কাউপুর গ্রামের আনাই আলীর পুত্র রুবেল আহমদ গাঁজা উদ্ধারের জন্য পুলিশকে খবর দেয় এবং পুলিশ তৎক্ষনাৎ টেইলারিং দোকানে তল্লাশি চালিয়ে গাঁজা উদ্ধার করে। কিন্তু রুবেল গাজা উদ্ধারের পর ছটকে পড়ে। এতে পুলিশের সন্ধেহ হয়। টেইলারিং দোকানের মালিক জুবায়ের গাজা রাখার বিষয়টি অস্বীকার করে এবং কেবা কারা তার দোকানে এসে ছিলেন তাদের নাম পুলিশকে জানায়। এক পর্যায়ে পুলিশ রুবেলকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রুবেল সাজানো এ ঘটনার পুরো বর্ণানা দেয়। এ ব্যাপারে বিশ^নাথ থানা পুলিশের এসআই অলক দাশ বাদি হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৮ এর ৩৬ (১) এর ১৯ (ক)/ ৪১ ধারা মতে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন, (মামলা নং-২১, তারিখ ২৭/১১/২০২০ইং)। মামলায় মোট ৫জনকে আসামি করা হয়। আসামি রুবেলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।