ভারতে স্যানিটাইজার খেয়ে ৯ জনের মৃত্যু!

ডেস্ক রিপোর্টঃ করোনাভাইরাস বা মহামারির মধ্যে ভাইরাস মুক্ত থাকতে সব উপায় অবলম্বন করা হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে শুরু করে দেশে স্বাস্থ্য বিষয়ক সংস্থাগুলোও নানা নির্দেশনা দিচ্ছে। কিন্তু এর মধ্যেও ঘটে যাচ্ছে বিভিন্ন অস্বাভাবিক ঘটনা। শুক্রবার (৩১ জুলাই) এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতে।

ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে হ্যান্ড স্যানিটাইজার পান করে অন্তত ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। কুরিছেদুরে লকডাউনে মদের দোকান বন্ধ থাকায় অ্যালকোহল মেশানো স্যানিটাইজার খাওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

শুক্রবার ঘটনাস্থল পরিদর্শ করে পুলিশ জানতে পেরেছে, গত কয়েকদিন ধরে এলাকার অনেকেই স্যানিটাইজারের সাথে পানি এবং কোমল পানীয় মিশিয়ে সেবন করে আসছে। তবে এর সাথে বিষাক্ত কিছু মেশানো হয়েছে কিনা, এ বিষয়ে তদন্ত শুরুর কথা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। হ্যান্ড স্যানিটাইজারে অ্যালকোহল থাকায় তারা সেটি পান করে আসছিল, আর এ কারণেই মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নিহতদের পরিবার বলছে, গত ১০ দিন আগে স্থানীয় বাজার থেকে হ্যান্ড স্যান্টিাইজার কিনেন তারা। এই স্যানিটাইজার পরীক্ষার জন্য গবেষণাগারে পাঠানোর কথা জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তারা। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর থেকেই লকডাউন করে দেয়া হয় কুড়িচেদু এলাকাটি।

নিহতদের মধ্যে একজন মদের সঙ্গে স্যানিটাইজার মিশিয়ে খেয়েছিলেন। বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনিও। হাসপাতালে নিয়ে যেতে যেতে রাস্তাতেই মৃত্যু হয় তাঁর। সকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় আরও ছ’জনকে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তাঁদের।

পুলিশ আরও বলছে, বৃহস্পতিবার এলাকাটির স্থানীয় এক মন্দিরের পাশে প্রথমে দুই ভিক্ষুককে মৃত অবস্থায় পান। এছাড়া আরও বেশ কয়েকজন হ্যান্ড সনিটাইজার পান করে হাসপাতালে ভর্তি আছেন বলে জানা গেছে।

প্রদেশটির প্রকাশ জেলার কুড়িচেদু এলাকায় এ ঘটনার পর মদের দোকানগুলি বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। স্যানিটাইজার পান করে আর কোনও হাসপাতালে কেউ রয়েছেন কি না, তার খোঁজ চলছে। যে দোকান থেকে স্যানিটাইজার কিনে পান করেছিলেন নিহতরা, ওই দোকানের সমস্ত স্যানিটাইজার বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সেগুলি পরীক্ষা করে দেখতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিদ্ধার্থ কৌশল।